অসুস্থ মিল্কীকে নিয়ে নোংরা রাজনীতি বন্ধের আহ্বান পরিবারের

0
1366

 

ডেইলি২৪বিডি-

ঢাকাঃ মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক মুজিবর রহমান মিল্কীকে নিয়ে বিভিন্ন গনমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ করা হয়। যেখানে তার চিকিৎসার অর্থ সংকট ও মানবেতর জীবনযাপনের কথা বলা হয়। উক্ত বিষয়গুলো সম্পূর্ণ মনগড়া ও বানোয়াট বলে প্রকাশিত সংবাদগুলোর প্রতিবাদ করেছেন মিল্কী পরিবার।

এক ফেসবুক ষ্ট্যাটাসে মিল্কী পরিবারের সদস্য তানভীর হক প্রকাশিত ষ্ট্যাটাসে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ করে মনগড়া এসব সংবাদের নিন্দা করেছেন।

উক্ত ষ্ট্যাটাসে বলা হয়েছে, “অনলাইনে নিউজ সহ, জাতীয় অনলাইন পত্রিকার, ও কিছু জাতীয় পত্রিকায় নিউজ এসেছে, সাবেক ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক অর্থের অভাবে চিকিৎসার করাতে পারছেন না। ওরা কোন যুক্তিতে এবং কার অনুমতি নিয়ে, এই পোস্টটি করেছেন.?? মজিবুর রহমান খান মিল্কী একজন সৎ রাজনীতিবিদ ছিলেন। কিন্তু কখনোই অভাবি ছিলেন না। উনার সকল প্রকার চিকিৎসার ব্যয় বহন ও ভরণপোষণ এর ক্ষমতা উনার পরিবার ও উনার ছেলের রয়েছে, কেউ এটা বলতে পারবে না যে, উনার ছেলে Sujoy Milkey কারো কাছে চিকিৎসার অর্থ সহয়তা চেয়েছে, বা ভবিষ্যৎ এ কখনও কারো কাছে সহযোগিতা চাওয়ার প্রয়োজন হবে না। ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী উনার প্রয়োজনীয় সকল চিকিৎসাই করানো হচ্ছে, উনার একটি পা ভাঙা থাকার ফলে বাইরে নিয়ে ট্রিটমেন্ট সম্ভব হচ্ছে না। যারা অসুস্থ ব্যাক্তি নিয়ে সহানুভূতির নোংরা রাজনীতি করছেন, তাদের উদ্দেশ্যে বলি নোংরা রাজনীতি বন্ধ করেন, সকলের পোস্ট রিমুভ বা ডিলিট করার জন্য অনুরোধ করা হল। সকলেই আমার দাদা মজিবুর রহমান মিল্কির জন্য দোয়া করবেন। উনি যেন দ্রুত সুস্থ হইয়ে উঠেন।”

উল্লেখ্য, ময়নসিংহ জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি(ভারপ্রাপ্ত) মুজিবর রহমান মিল্কি। মুক্তিযুদ্ধে রেখেছেন বিশেষ অবদান। তার নেতৃত্বেই মুক্তিযুদ্ধের সময়কালে আইয়ুব খানের জনসভা পন্ড করে দিয়েছিলো ময়মনসিংহের স্বাধীনতার স্ব-পক্ষের জনতা। তিনি ছিলেন ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির দুইবারের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক এবং সভাপতি নির্বাচিত হয়ে নেতৃত্ব দিয়েছেন ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগের। আওয়ামীলীগের ময়মনসিংহ জেলা কমিটির বহুবারের নির্বাচিত সহ-সভাপতি তিনি। বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের পরবর্তী সময়ে হত্যাকারীদের বিচারের দাবীতে সংগঠিত হওয়া আন্দোলনে দিয়েছেন নেতৃত্ব। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নেতৃত্ব দিয়েছেন ৯০ এর স্বৈরাচার এরশাদ বিরোধী আন্দোলনেও।

কিশোরগঞ্জের ইটনা থানার রাইটুটি গ্রামে জন্ম নেওয়া কালজয়ী এ সাহসী নেতা উন্নত পড়াশোনার জন্য কৈশোরেই ময়নসিংহ শহরে চলে আসেন। স্বচ্ছ ইমেজের অধিকারী কিংবদন্তী এ নেতা ময়মনসিংহের মাটিতে আওয়ামীলীগকে সংগঠিত করে হয়ে ওঠেছিলেন ময়মনসিংহের আওয়ামী রাজনীতির প্রাণভোমরা।

ডেইলি২৪বিডি’র মাধ্যমে কিংবদন্তিতূল্য এ নেতার শরারিরিক সুস্থ্যতা কামনা করে দেশবাসীর নিকট দোয়া কামনা করেছেন তার পরিবারের সদস্যসরা।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here