মাতৃভূমি: জাহান্নাম থেকে জাহান্নামে

0
160

 

ডেইলি২৪বিডি-

ঢাকাঃ জৈন সম্রাট অশোক থেকে’ই শোকের কান্নায় মানবতার রক্তক্ষরণে কাঁদছে মা ও মাতৃভূমি, একদিন অশোক ও মানবতা বুঝেছিল- বৌদ্ধশাস্ত্র মতে বৌদ্ধভিক্ষুর কদমচুমী।

তারপর যুগে যুগে মা ও মাতৃভূমির বুকে মনুষ্যজীব দানবদের হানা হয়েছে কত’শত, যুগের পর যুগ,শতাব্দীর পর শতাব্দী, মা ও মাতৃভূমি কেঁদে’ই যাচ্ছে জাহান্নামীর মতো।

তারপর কেউ এসে জাহান্নামে সুখের প্রদীপ জ্বালালে যুগের তালে কিছুদিন সুখে থাকে মা ও মাতৃভূমি, জাহান্নামের সুখ কি আর চিরস্থায়ী হয়? তাইতো মানবতার পায়ে বাজে মৃত্যুর রুমঝুমি।

কালের গর্ভপাতে মা ও মাতৃভূমির বুকে কায়েম ছিল ব্রিটিশ বেনিয়ান শাসনামল, শোষণ করে গেল মা ও মাতৃভূমির জল-স্থল বর্বরতার অন্ধকারে মানবতা ডুবে গেল ভূতল।

মাতৃভূমির বুকে সাম্প্রদায়িকতার বীজ বোনে চলে গেল ব্রিটিশ বেনিয়ান শোষক শ্রেণী, আবার কায়েম করলো বর্বরতার শাসন কায়েদে আজম থেকে আইয়ূব খান পশ্চিম পাকিস্তানী।

সে নৃশংষ বর্বরতার চিত্রপটে দেখেছি আমার মা ও মাতৃভূমির বুকে রক্তের বন্যা, একনদী রক্তের দামে স্বাধীনতা পেয়েছি কত মা-বাবা হারিয়েছে তাদের পুত্র-কন্যা।

আমরা যুগ যুগান্তরে জাহান্নামেই আছি লজ্জা রাখবো কোথায়? বিবেকের কাছে আমি প্রশ্নকর্তা, ইতিহাস সাক্ষীদেয় মানবতা আজ ভূতল গর্ভে রক্তের দাগ মুছেনি,সহপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে করলো হত্যা।

ত্রিশ লক্ষ শহিদের তাজা রক্ত আর প্রাণের বিনিময়ে স্বাধীন দেশে এ কেমন স্বাধীনতা হায়-হায়, যদি বলি উচিত কথা,কারো আরাম, কারো ব্যথা, পিলখানার হত্যা জাতির আরেক কলঙ্কের অধ্যায়।

আমরা স্বাধীন,স্বাধীনতা কোথায়? ভালো মন্দ সবকিছুতে’ই হাসি আর হাততালি, এ কেমন স্বাধীনতা?অধিকারের মাথাকাটা সারাদেশে বর্বরতা হয়েছে চৈতালি।

স্বাধীনতার স্লোগান আছে,স্বাধীনতা কোথায়? আবাল-বৃদ্ধ-বনিতার মনে একই প্রশ্ন জাগে, আমরা জাহান্নাম থেকে জাহান্নামে’ই যাচ্ছি জাহান্নাম থেকে চিরমুক্তি দাও আগে।

এ কেমন স্বাধীনতা?যেখানে ন্যায্য মিছিলে, মানববন্ধনকালে, প্রশাসন কর্মীরা বায়ান্ন একাত্তরের মতো নির্যাতন করে, তাইতো আমি আবার একটি স্বাধীনতা চাই! স্বাধীনতার মন্ত্রে মানুষ তোলবে সুশাসন গড়ে।

সালাম, বরকত,রফিক,জব্বারের শিখানো পথে নিরাপদ সড়ক চাই দাবি নিয়ে রাস্তায় ছাত্রসমাজ, তাদেরকে রাজাকার বি এন পি, জামাত-শিবির বলে- মন্ত্রীর ব্যঙ্গউক্তি, কোথায় লুকাবে জাতির লাজ।

শান্তনা যদি হয় প্রাণের বিনিময়,একবার পিছনে থাকাও রক্তের স্রোতে প্রতিষ্ঠিত হয়ে কালান্তর হচ্ছে প্রতিটি দাবি, নিরাপদ সড়ক,নিরাপদ জীবন, নিরাপদ দেশ, জেনে রাখিও ছাত্র আন্দোলন দাবি আদায়ের চাবি।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here