রক্ত দিয়ে মুমূর্ষ রোগীর জীবন বাঁচালেন বিশ্বনাথ থানার ওসি

0
256

ডেইলি২৪বিডি-

ঢাকাঃ স্বাধীনতা সংগ্রাম সহ দেশ গঠণে পুলিশের অসংখ্য ত্যাগের নজির থাকলেও একবিংশ শতাব্দীতে এসে পুলিশ প্রতিনিয়তই নেতিবাচক সংবাদের শিরোনামে ঘুরেফিরেই আসছে।

কিন্তু প্রশ্ন হল একবিংশ শতাব্দীতে এসে পুলিশ কি সত্যিই নেতিবাচক? এই প্রশ্নের উত্তর একেকজনের কাছে একেক রকম হলেও অস্বিকার করার কোনও উপায় নেই সমাজ বা রাষ্ট্র জীবনে যে কোন অনাখাঙ্ক্ষীত ঘটনার পর সবার আগে এগিয়ে আসে পুলিশ।

বিগত কয়েক বছরে দেখা গিয়েছে অনেক পুলিশ সদস্যকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে স্কুলের শিশুদের জীবন বাঁচাতে, আবার কখনও ঝাঁপ দিতে দেখা গিয়েছে নর্দমার নোংরা পানিতে, কখনও বা পরম মমতায় হাত ধরে বৃদ্ধ পথচারীকে রাস্তা পার করে দেখা গিয়েছে।

ঠিক তেমনি, ‘পুলিশই জনতা, জনতাই পুলিশ’। ‘মানুষ মানুষের জন্য’। একজন অচেনা-অজানা রোগীর জীবন বাঁচাতে নিজের রক্ত দান করে ওই কথাগুলোরই যেন বাস্তব দৃষ্টান্ত দেখালেন সিলেটের বিশ্বনাথ থানার ওসি শামসুদ্দোহা পিপিএম।

বিশ্বনাথ উপজেলার জাহির আলীর স্ত্রী দীর্ঘদিন ধরে রক্তশূণ্যতায় ভূগছিলেন। তার রক্তের গ্রুপ “এবি পজেটিভ” হওয়ায় কোন অবস্থাতেই রক্ত জোগাড় করতে পারছিল না জাহির আলীর পরিবার বা হসপিটাল কর্তৃপক্ষ। রক্তের অভাবে ওই গৃহবধু যখন প্রায় মৃত্যুসজ্জায় ঠিক তখনি এক ছাত্রলীগ নেতার মাধ্যমে খবরটি কানে পৌছাঁয় বিশ্বনাথ থানার ওসি শামসুদ্দোহার।

ঘটনা শুনে নিজেকে ধরে রাখতে পারেননি ওসি শামসুদ্দোহা। তাৎক্ষণিকভাবে তিনি তার সহকারীকে নিয়ে মোটরসাইকেল যোগে সিলেটের মুজিব জাহান রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি নামে একটি রক্তদান কেন্দ্রে রক্ত দিয়ে আসেন। একজন ওসির এমন মহান কাজে রক্তদানে মানুষ এগিয়ে আসবেন বলে অনেকেই মনে করেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here